Sunday , September 24 2017
হোম / জাতীয় / আসলাম চৌধুরীর রিমান্ড শুনানি হচ্ছে না আজ

আসলাম চৌধুরীর রিমান্ড শুনানি হচ্ছে না আজ

নাশকতা ও রাষ্ট্রদ্রোহের তিন মামলায় বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর রিমান্ড শুনানি হচ্ছে না আজ সোমবার। আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে এ শুনানি শুরু হয়।image-17444

এর আগে সকাল ১০টার দিকে আসলামকে কারাগার থেকে ঢাকার হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। আদালত পুলিশের এসআই রুহুল আমিন জানান, তিনজন মহানগর হাকিম তিনটি মামলায় রিমান্ড শুনানি নেওয়া কথা ছিল। তবে আজ এ শুনানি হচ্ছে না।

গত বছরের ৪ ও ৫ জানুয়ারি মতিঝিল থানা এবং লালবাগ থানায় মামলা দুটি করা হয়। মামলায় ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টির সদস্য মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে মিলে বাংলাদেশে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে করা রাষ্ট্রদ্রোহ মামলাতেও আসলাম চৌধুরীকে ১০ দিনের হেফাজতে চেয়েছে পুলিশ।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র বানানোর প্রচেষ্টায় নানা ধরনের নাশকতামূলক কার্যক্রম, ষড়যন্ত্রমূলক হত্যা ও বোমাবাজির সঙ্গে আসামি আসলাম চৌধুরীর যোগসূত্র রয়েছে। ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য তাকে রিমান্ডে নেওয়া প্রয়োজন। চট্টগ্রামের নেতা আসলাম চৌধুরীকে মাস খানেক আগে বিএনপির নতুন কমিটিতে যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে মনোনীত করেন খালেদা জিয়া।

আর লিকুদ পার্টির সদস্য মেন্দি এন সাফাদি ইসরায়েলের বর্তমান সরকারের উপমন্ত্রী এম কে আয়ুব কারার একজন সাবেক উপদেষ্টা। তিনি নিজের নামে মেন্দি এন সাফাদি সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস প্রতিষ্ঠানটি চালান। সম্প্রতি ভারতের এক সম্মেলনে তাদের দুজনের সাক্ষাতের ছবি ও খবর গণমাধ্যমে এলে আলোচনার সূত্রপাত হয়। আওয়ামী লীগ নেতারা অভিযোগ করেন, শেখ হাসিনা সরকারকে উৎখাত করতে বিএনপি ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েল এবং দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সঙ্গে মিলে ‘ষড়যন্ত্র’ করছে।

ইসরায়েল কিংবা মোসাদের সঙ্গে কোনো ধরনের ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়, আসলামের ওই সফর ছিল ‘ব্যক্তিগত’। তবে আসলাম বা সাফাদি কেউই ভারতে ওই সাক্ষাতের খবর অস্বীকার করেননি। গ্রেপ্তার হওয়ার আগে আসলাম সাংবাদিকদের বলেন, মেন্দি এন সাফাদি যে ইসরায়েলের লিকুদ পার্টির নেতা, তা তিনি সে সময় ‘জানতেন না’ ।

আর সাফাদিও বিবিসির বাংলাকে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আসলামের সঙ্গে প্রকাশ্য অনুষ্ঠানে দেখা হলেও তাদের মধ্যে ‘কোনও গোপন বিষয়ে’ কথা হয়নি। এ নিয়ে আলোচনার মধ্যেই গত ১৫ মে ঢাকা থেকে আসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন তাকে সন্দেহভাজন হিসেবে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

সাত দিনের ওই রিমান্ড শেষে ২৪ মে আদালতে হাজির করার পর নতুন করে নাশকতার দুটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।এরপর ২৬ মে গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক গোলাম রব্বানি গুলশান থানায় আসলামের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাটি করেন, যেখানে ফৌজদারি দণ্ডবিধির ১২০/বি (রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র), ১২১/এ (রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার ষড়যন্ত্র) এবং ১২৪/এ (রাষ্ট্রদ্রোহ) ধরায় অভিযোগ আনা হয়।

Check Also

অবাধে চলছে ফরমালিন পঁচে যাচ্ছে মানবদেহ হাত-পা

মুহাম্মদ আমিন : খাদ্যে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় জমে উঠেছে ফরমালিন ব্যবসা। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *