Saturday , September 23 2017
শিরোনাম
হোম / আন্তর্জাতিক / দিল্লিতে কৃষ্ণাঙ্গদের ওপর হামলায় বিব্রত ভারত

দিল্লিতে কৃষ্ণাঙ্গদের ওপর হামলায় বিব্রত ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে আফ্রিকান নাগরিকদের ওপর আবারো নৃশংস হামলার ঘটনায় ভারত সরকার চরম অস্বস্তিতে পড়েছে। দক্ষিণ দিল্লির একটি এলাকায় আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের ছয়জন নাগরিককে ক্রিকেট ব্যাট ও লাঠি দিয়ে পেটানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সর্বশেষ কৃষ্ণাঙ্গদের ওপর হামলার ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিল্লির ছত্তরপুর এলাকায়। এই ঘটনায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে হামলার তদন্ত নিয়ে কথা বলেছেন বলে জানা গেছে। গত সপ্তাহেই দিল্লিতে কঙ্গোর এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করার পরে আফ্রিকার দূতাবাসগুলো যৌথভাবে ভারতের কাছে প্রতিবাদ জানিয়েছে। নতুন এই হামলার পরে ভারত ও আফ্রিকার কূটনৈতিক সম্পর্কে নতুন সংশয় তৈরি হতে পারে। অভিযোগকারী দুই নারীর একজন উগান্ডা ও অন্যজন দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিক। এছাড়া নাইজেরিয়ার একজন যুবকও হামলার শিকার হয়েছেন। অভিযোগকারী নাইজেরীয় যুবক বলেছেন, তিনি স্থানীয় একটি চার্চের যাজক। অটোরিক্সায় চেপে চার্চে যাওয়ার পথেই তাকে ও তার বন্ধুদের টেনে নামিয়ে ক্রিকেট ব্যাট ও লাঠি দিয়ে পেটানো হয়েছে। পুলিশ অবশ্য এই হামলাকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা বলেই উল্লেখ করেছে।

2

পুলিশের দাবি, বেশি রাতে জোরে গান বাজানো বা মদ খেয়ে হুল্লোড় করাকে কেন্দ্র করেই স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে আফ্রিকানদের সংঘর্ষ হয়। দেশটির পুলিশ কিংবা প্রশাসন এটাকে বর্ণবাদী হামলা বলে মানতে রাজি নয়। এমন কী ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ভি কে সিং বলেছেন, একটা তুচ্ছ সংঘর্ষের ঘটনাকে সংবাদমাধ্যম ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে বড় করে দেখাচ্ছে।

ইতোমধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ এই হামলার ঘটনা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এবং দিল্লির গভর্নর নাজিব জং এর সঙ্গে কথা বলেছেন। এরপরই ওই হামলার ঘটনায় পুলিশ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে। আরও বেশ কয়েকজন অভিযুক্তকে খোঁজা হচ্ছে। উল্লেখ্য, দিল্লি পুলিশ দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ।

গত সপ্তাহে দিল্লিতে কঙ্গোর এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করার পরে দিল্লিতে আফ্রিকান দূতাবাসগুলো এক যৌথ বিবৃতিতে বলেছিল, এভাবে তাদের নাগরিকদের ওপর হামলা চলতে থাকলে আফ্রিকা থেকে ভারতে ছাত্রদের পড়তে আসা বন্ধ হয়ে যাবে। তারা এই সপ্তাহে ভারতের উদ্যোগে আয়োজিত আফ্রিকা দিবসের উৎসব বর্জনের ডাক দেন।

যদিও ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে তাদের অনেকেই শেষ পর্যন্ত দিল্লির এই অনুষ্ঠানে এসেছিলেন। ছত্তরপুরে হামলার সবশেষ ঘটনার পর আফ্রিকান রাষ্ট্রদূতরা এখনও কোনও নতুন বিবৃতি দেননি। তবে তারা পরিস্থিতি নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেছেন বলে জানা গেছে। তবে ভারতে অবস্থানরত আফ্রিকান নাগরিকরা তাদের ওপর এই সব হামলার প্রতিবাদ জানাতে আজ দিল্লির যন্তর মন্তর প্রাঙ্গণে বিক্ষোভ সমাবেশ করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

Check Also

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চি ও মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে ‘চাপ’ দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমরা যে ট্র্যাজেডির শিকার হচ্ছে তাতে উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র। রোহিঙ্গাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *