Saturday , November 25 2017
শিরোনাম
হোম / খেলার ভূবন / কুঁড়ে ও রাগি ছিলেন এখনকার ‘বিনয়ী’ ফেদেরার

কুঁড়ে ও রাগি ছিলেন এখনকার ‘বিনয়ী’ ফেদেরার

স্পোর্টস ডেস্ক :টেনিস কোর্টে ভদ্র খেলোয়াড় হিসেবে যারা পরিচিত, সেই তালিকায় নিঃসন্দেহে উপরের দিকে থাকবেন রজার ফেদেরার। ১৯টি গ্র‌্যান্ড স্লাম জয়ী সুইস–তারকাকে কোর্টের মধ্যে মাথা গরম করতে দেখা যায় না সাধারণত। জেতার মুখ থেকে হেরেছেন বহু ম্যাচ। কিন্তু র‌্যাকেট আছড়ে ভেঙে ফেলা বা প্রতিপক্ষের উদ্দেশ্যে গালি— পাড়তে তাকে দেখা যায় না।এসব কারণেই খেলোয়াড়ের কাছে তিনি আদর্শ।

কিন্তু এই ফেদেরার মোটেই এরকম ছিলেন না। বরং শুরুর দিকে খেলার চেয়ে বরং রাগের জন্য তিনি বেশি বিখ্যাত ছিলেন। ছোটবেলা থেকে সুইস–তারকাকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন সাবেক এটিপি কমিউনিকেশন ম্যানেজার ডেভিড ল।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে ফেদেরারের ক্যারিয়ারের শুরুর জীবনের বেশ কিছু অজানা তথ্য তুলে ধরেছেন। ল বলছেন, ‘যখনই আমরা কোনও টুর্নামেন্টে খেলতে যেতাম, এবং ফেদেরার বাজে পারফরম্যান্স করত, তখনই ও মানসিকভাবে ভীষণ ভেঙে পড়ত এবং কোর্টেই র‌্যাকেট ভেঙে ফেলত। ঠিক যেন একটা ছোট বাচ্চার মতো আচরণ করত। তখনও একজন মানুষ হিসেবে পরিণত হতে পারেনি। বেশ কিছু সময় লেগেছে।’ল জানিয়েছেন, বেশ কিছু ম্যাচে বাজেভাবে হারের পর লকার রুমে গিয়ে কাঁদতেও দেখা গেছে তাকে।

ফেদেরারের ছোটবেলার কোচ মার্ক রসেট আবার বলছেন, প্রতিভা থাকলেও, ফেদেরার এত কুঁড়ে ছিলেন যে কিছুতেই অনুশীলন করতে চাইতেন না। রসেটের কথায়, ‘সাধারণত টুরে খেলতে গেলে তরুণরা একটু চাপে থাকে। কীভাবে ভাল খেলতে হবে, সেই ভেবে নার্ভাসও থাকে। কিন্তু ফেদেরারের কোনও টেনশনই ছিল না। যা হবে দেখা যাবে, এরকম মনোভাব নিয়ে চলত।’

শেষ পর্যন্ত সাবেক কোচ পিটার কার্টারের মৃত্যুর পরে বদলান ফেডেরার। ৯–১৮ বছর বয়সে ফেদেরারকে কোচিং করিয়েছিলেন কার্টার। ২০০২–এ গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় তার। ল বলছেন, ‘ওই ঘটনার পরে বিধ্বস্ত হয়ে গিয়েছিল ফেদেরার। বেশ সময় লেগেছিল ওর এই ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে।’

Check Also

আজ বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন ভুবনেশ্বর কুমার

স্পোর্টস ডেস্ক :  জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে চলেছেন ভারতের কৃতি পেসার ভুবনেশ্বর কুমার। আজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *