Sunday , September 24 2017
হোম / রাজনীতি / রোহিঙ্গা নিয়ে কূটনীতিতে ব্যর্থ সরকার: রিজভী

রোহিঙ্গা নিয়ে কূটনীতিতে ব্যর্থ সরকার: রিজভী

ঢাকার ডাক ডেস্ক :  রোহিঙ্গা ইস্যুতে কূটনৈতিক রাজনীতিতে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে দাবি করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ‘মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন করছে, কিন্তু সরকার চুপ করে বসে আছে। মিয়ানমারকে সরকার কোনো চাপ দিচ্ছে না। সরকার নিজ দেশের লোককে হত্যা করতে পারে, বাইরে কোনো দেশ আক্রমণ করলে কিছুই করতে পারে না। এতে বোঝা যায় সরকার কূটনৈতিক রাজনীতিতে সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে আয়োজিত এক মানববন্ধনে রিজভী এসব কথা বলেন। মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ নামের বিএনপিপন্থি একটি সংগঠন।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকারের জোরালো কূটনৈতিক তৎপরতা নেই দাবি করে রিজভী আহমেদ বলেন, ‘এই সরকার পরের শক্তি নিয়ে ক্ষমতায় আছে, জনগণের শক্তি নেই তাদের সাথে। যদি জনগণের ভোটে নির্বাচিত গণতান্ত্রিক সরকার দেশে থাকত, তবে ব্যাপক উদ্যোগ নিয়ে বিশ্ব সম্প্রদায়কে সাথে নিয়ে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিম নিধন বন্ধে কার্যকর উদ্যোগ নেয়া সম্ভব হতো।’

দেশের আকাশসীমা লঙ্ঘনেও সরকারের কোনো প্রতিবাদ নেই দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘মিয়ানমার বাহিনীর হেলিকপ্টার বাংলাদেশের আকাশসীমা বারবার অতিক্রম করলেও সরকার দায়সারা প্রতিবাদলিপি দিয়ে কর্তব্য শেষ করছে। এতে বোঝা যায় সরকার কূটনৈতিক রাজনীতিতে সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হয়েছে।’

অং সান সূচির সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘এক সময় সূ চির গণতান্ত্রিক আন্দোলন দেখে আমরা উদ্বুদ্ধ হতাম। কিন্তু আজকের তার কর্ম দেখে আমরা বিস্মিত হচ্ছি। সু চি শান্তির জন্য নোবেল পেলেন, তিনি রোহিঙ্গাদের নির্যাতন করছেন কীভাবে।’ এই গণতান্ত্রিক নেত্রী এখন সামরিক বাহিনীর পকেটে ঢুকে গেছেন বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।

সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন, ‘বর্বরতার মুখে প্রাণ বাঁচাতে হাজারো রোহিঙ্গা বাংলাদেশ সীমান্তের দিকে ছুটে আসছেন। তারা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছেন। নো ম্যান্স ল্যান্ডে মানবেতর জীবন যাপন করছে হাজার হাজার রোহিঙ্গা পরিবার। খাদ্য ও পানির অভাবে সেখানে হাহাকার চলছে।’

সভাপতির বক্তব্যে আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদর রহমান বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি, অং সান সু চি এবং শেখ হাসিনা ত্রিভুজ হত্যাকারী। গুজরাটের হত্যাকারী নরেন্দ্র মোদী, রাখাইনদের হত্যাকারী অং সান সু চি এবং বাংলাদেশে মুসলিম হত্যাকারী হচ্ছে শেখ হাসিনা। এই হত্যাকারীদের প্রতি আমরা তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাই।’

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান এ জেড এম জাহিদ হোসেন প্রমুখ।

Check Also

হালে পানি না পেয়ে প্রধানমন্ত্রীর নিখুঁত প্রচেষ্টায় খুঁত ধরার অপচেষ্টা বিএনপির : তথ্যমন্ত্রী

আব্দুল্লাহ আল শাফী : তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, রোহিঙ্গা বিষয়ে বিএনপি হালে পানি না …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *