Saturday , November 25 2017
শিরোনাম
হোম / আন্তর্জাতিক / সিল্ক রুটে যোগ দিতে ভারতকে চীনের পুনর্বিবেচনার আহবান

সিল্ক রুটে যোগ দিতে ভারতকে চীনের পুনর্বিবেচনার আহবান

অনলাইন ডেস্ক : সিল্ক রুট বা ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড প্রকল্প নিয়ে চীন ও ভারতের মধ্যেকার দ্বন্দ্ব মিটিয়ে ফেলতে রাশিয়ার অনুরোধের একদিন পর এমন আহবান এল। দীর্ঘদিন ধরেই চীন-পাকিস্তান ইকোনোমিক করিডোরের ওপর আপত্তি তুলে রেখেছে ভারত। এছাড়া সিল্ক রুট বা ওয়ান বেল্টের মত মহাসড়কটি গিলগিট-বালতিস্তান অঞ্চলের মধ্যে যাওয়ার কথা রয়েছে যেটি পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে থাকলেও ভারত তা নিজের মত দাবি করে। স্পুটনিক ইন্টারন্যাশনাল

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইং ভারতকে চীন-পাকিস্তান ইকোনোমিক করিডোর প্রকল্প থেকে আপত্তি তুলে নেয়ার আহবান জানিয়ে বলেছেন, বরং ভারতের উচিত এধরনের ট্রিলিয়ন-ডলারের অবকাঠামো উদ্যোগে যোগ দেয়া যার প্রতি প্রবল আন্তর্জাতিক সমর্থন রয়েছে। সিল্ক রুট বা ওয়ান বেল্ট প্রকল্প নিয়েও ভারত দোদুল্যমান রয়েছে কিন্তু চীন এসব প্রকল্প নিয়ে বেশ খোলামেলা ও উদাত্ত আহবান জানিয়েছে যাতে অনেক দেশ মিলিত স্বার্থের কারণে এতে যোগ দিচ্ছে। এছাড়া পাকিস্তানের সঙ্গে ইকোনোমিক করিডোর প্রকল্পটি অর্থনৈতিক সহযোগিতা মাত্র যা চীন বহুবার বলেছে। এ প্রকল্পের লক্ষ্য তৃতীয় কোনো দেশ বা আঞ্চলিক বিভেদ সৃষ্টি নয়।

গত মে মাসে সিল্ক রুট নিয়ে যে আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আয়োজন করে চীন তাতে ভারত যোগদানে বিরত থাকে। সিল্ক রুট এশিয়া, আফ্রিকা ও ইউরোপকে মহাসড়ক ও নৌপথে সংযুক্ত করবে এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ব্যক্তিগতভাবে এ প্রকল্প বাস্তবায়নে বেশ উদ্যোগী হয়ে কাজ করছে। গত মে মাসের মাঝামাঝি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয় কোনো দেশই এধরনের প্রকল্প মেনে নিতে পারে না যা তার সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখ-তার ওপর উদ্বেগ সৃষ্টি করে।
সম্প্রতি চীনের কম্যুনিস্ট পার্টির ১৯তম ন্যাশনাল কংগ্রেসে পার্টির সংবিধান সংশোধন করা হয় এবং ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড প্রকল্প বাস্তবায়নে বেশ জোর দেয়া হয়। ভারত ও চীনের মধ্যে এ নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে এধরনের সংশোধন বেশগুরুত্বপূর্ণ। কারণ সিল্ক রুটের মত প্রকল্প নিয়ে এর আগে চীনের বিখ্যাত নেতা মাও দে জং বিষয়টির ওপর গুরুত্ব দেন ও পরবর্তীতে দেং জিয়াওপিং বেশ আগ্রহী হয়ে ওঠেন। ভারতের স্কুল অব ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিসের অধ্যাপক ড. শরণ সিং বলেন চীনের বর্তমান প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং চীনের মহান নেতাদের মতাদর্শগত চিন্তাধারা প্রবর্তিত করতেই সিল্ক রুট প্রকল্প এগিয়ে নিয়ে যেতে চাচ্ছেন।

স্পুটনিককে শরণ সিং আরো বলেন, ভারত সিল্ক রুট থেকে সরে যায়নি বরং এ প্রকল্প নিয়ে চিন্তাভাবন ও বিস্তারিত আলোচনা প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে আগাতে চাইছে। কাশ্মীরের গিলগিট-বালতিস্তান অঞ্চলে ইকোনোমিক করিডোর নির্মাণের কথা রয়েছে এবং ওই অঞ্চলটি ভারত ও পাকিস্তান উভয় দেশ নিজেদের অংশ বলে দাবি করে বলে বিতর্কিত অঞ্চল। শরণ সিং আরো বলেন, যদিও চীন দাবি করছে পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে কাশ্মীরেই করিডোরটি বাস্তবায়ন হবে তারপরও এক্ষেত্রে চীনের অবস্থান পরিবর্তন হচ্ছে কি না তা নিয়ে যথেষ্ট দুশ্চিন্তা আছে ভারতের।

Check Also

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক চায় চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সঙ্গে চীন আরও নিবিড় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *